স্টামফোর্ড কনভোকেশন ২০১৮ অনুষ্ঠিত

গত ১৬ জানুয়ারি, ২০১৮ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে স্টামফোর্ড কনভোকেশন ২০১৮ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবর্তন অনুষ্ঠানে সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ। প্রথমে থীম সং, তারপর মাননীয় মন্ত্রীর উপস্থিতিতে প্রসেশন ও জাতীয় সংগীত বাজানো হয়। এর পরপরই স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর প্রতিষ্ঠাতা, ট্রাস্টি বোর্ডের প্রেসিডেন্ট ও প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য প্রফেসর ড. এম. এ. হান্নান ফিরোজকে স্মরণ করে তার উপর নির্মিত একটি ডকুমেন্টারি দেখানো হয়।
মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, আজ আপনাদের জীবনে স্মরণীয় দিন। শ্রমের যে বীজ বুনেছিলেন, আজ তার ফসল তুলছেন। আপনারা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যে জ্ঞান অর্জন করেছেন, তা সাধারণ মানুষের কল্যাণে কাজে লাগাবেন।
প্রফেসর ড. এ. কে. আজাদ চৌধুরী সমাবর্তন বক্তব্যে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা মেষ কথা নয়, জীবন থেকে শিক্ষা নিতে হবে। জীবনে পরাজয়ের কোনো স্থান নেই, তোমাকে জয়ী হতে হবে।
এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর আব্দুল মান্নান, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের এক্সিকিউটিভ কমিটির মাননীয় সদস্য এ. কে. এম. এনামুল হক শামীম, স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর বোর্ড অব ট্রাস্টির চেয়ারম্যান ফাতিনাজ ফিরোজ এবং উপাচার্য প্রফেসর মুহাম্মাদ আলী নকী।
উল্লেখ্য, বর্তমানে স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এ ১৪টি বিভাগের অধীনে ২৬টি প্রোগ্রামে শিক্ষা কার্যক্রম চালু রয়েছে। স্টামফোর্ড কনভোকেশন-২০১৮ তে সতেরশত বাহাত্তর (১৭৭২) জন শিক্ষার্থীকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী প্রদান করা হয়। এরমধ্যে ৫টি ফ্যাকাল্টি থেকে ৫জন চ্যান্সেলর স্বর্ণপদক ও ১৯জন ভাইস-চ্যান্সেলর স্বর্ণপদক লাভ করেন। চ্যান্সেলর স্বর্ণপদক প্রাপ্তরা হলেন, রাজিয়া আফরিন (MBA ০৫২১৫১৭৮), প্রিয়াঙ্কা মারিয়া সরকার (ECO ০৪৬০৫১৮২), নাফিসা তাবাস্সুম (MBO ০৫১০৫৩৯৯), সিদ্দিকা বিনতে হালিম (LMF ০৪৫০৫০৪৭), মো. রফিকুল ইসলাম (MCE ০৫৬০৫৩১২)।